কেয়া ওয়াহিদের কবিতা

কেয়া ওয়াহিদের কবিতা

নীলাদ্রীতা

আজ বাতাসের সুরে মন নেই
শুকনো পাতায় মর্মর গান নেই
বিজন বীক্ষণ চোখের আলো
ছুঁয়ে থাকে মাঝবয়সী জানালার গ্রিল—
ভোরের কুয়াশা আড়াল করেছে
দেউড়ির বাতি ঘর
শিশির ঢাকা অরণ্যে কিছুই যায়না দেখা,
তবুও সে তাকিয়ে থাকে আনমনে দূর
উদাসিনী চোখে۔۔۔

ছাতিমের জীর্ণ শেকড়, অধরা আদিত্য,
পুকুরপাড়ে হেলে পড়া বিকেল_
বর্ণিল বসন্ত বিভায় টিউলিপ, ড্যাফোডিল,
চেরি ব্লসম…
অনুরণনের ঢেউ নায়াগ্রার জলে
রোদেলা দুপুরের আহবান সূর্যস্নানের ছলে।

দূরত্ব

আঙুলের সাথে আঙুলের কাটাকাটি খেলায়
করতলের কাছে হেরে যাওয়া বিষাদের
গন্ধ এখনো লেগে আছে —-
প্রেমানন্দ উৎসব বাড়ি আজ
মৌনতার মৌতাতে মগ্ন বিরোহী স্থায়ী নিবাস

তোমার পাঠানো হাতের লেখারা –
পৃথিবীর চূড়ায় কাঁটা তারের বেড়ায় অবরুদ্ধ,
কোন এক কোজাগরী পূর্ণিমায় হয়তো এসে পৌঁছাবে;
হয়তবা ফসিল হবে হাহাকারের
অতল গহ্বরে–

স্বপ্ন মন্দিরের বেদিতে তুলে রেখেছি
তোমার দ্বিধা, ঠোঁটের আড়ষ্টতা এবং দীর্ঘশ্বাস-
শব্দাতীত শব্দরা কড়া নেড়ে যাবে মনের দুয়ারে,
অনুভূতির একক অনুরণনে,
অনাদিকাল তুমি থাকবে
নিশ্বাস ও নোলকের দূরত্বে।